সোমবার, এপ্রিল ১৫, ২০২৪
Homeআমেরিকাআটলান্টায় বাংলাদেশ এনভায়রনমেন্ট নেটওয়ার্ক এর উদ্যোগে ‘মানব স্বাস্থ্যের উপর জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব’...

আটলান্টায় বাংলাদেশ এনভায়রনমেন্ট নেটওয়ার্ক এর উদ্যোগে ‘মানব স্বাস্থ্যের উপর জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব’ শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

নাহিদ ফারজানা, আটলান্টা
গত ২৩ সেপ্টেম্বর শনিবার, জর্জিয়া অঙ্গ রাজ্যের আটলান্টা শহরে বাংলাদেশ এনভায়রনমেন্ট নেট ওয়ার্ক ( বেন), সাউদারণ ইউ এস চ্যাপ্টারের এর উদ্যোগে ‘মানব স্বাস্থ্যের উপর জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব’ শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। বিশিষ্ট যন্ত্র সঙ্গীত শিল্পী নাবিল রহমান দোতারায় একটা চমৎকার সুর বাজিয়ে সভার সূচনা করেন।

নাবিল রহমানের সুর- ঝঙ্কারের পর সংগঠনের সমন্বয় কমিটির সদস্য মুরশেদুল হাকিম শুভ্রের সঞ্চালনায় আলোচনার মূল প্রতিপাদ্যের উপর আলোচনা শুরু হয়। ‘ মানব স্বাস্থ্যের উপর জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব’ বিষয়ের উপর আলোকপাত করেন সভার মুল আলোচক স্থানীয় এমোরি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কুল অফ মেডিসিন এর কারডিওলজি বিভাগ এর বিশিষ্ট চিকিৎসক ডাঃ আজিজুল হক।

ডাঃ আজিজুল হক তাঁর আলোচনায় জলবায়ু পরিবর্তনের কারণ, কিভাবে জলবায়ু পরিবর্তন হচ্ছে তা ব্যাখ্যা করতে গিয়ে বলেন বনাঞ্চল নষ্ট করা , নগরায়ন, শিল্প-কারখানা থেকে ক্ষতিকারক গ্যাস নিঃসরন, যানবাহনের নির্গত কার্বন ডাই অক্সাইড, ইত্যাদির ফলে জলবায়ু পরিবর্তিত হচ্ছে। এর ফলে উষ্ণায়ন ঘটছে, বন্যা, খরা, ঝড় প্রভৃতি প্রাকৃতিক দুর্যোগ বাংলাদেশ সহ বিভিন্ন দেশের বিশেষ করে গ্লোবাল সাউথ এর মানুষের জীবন বিপর্যস্ত করছে।

এই ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশী আক্রান্ত হচ্ছে দরিদ্র জনগোষ্ঠী।

এই অবস্থা থেকে উত্তরণের জন্য বনাঞ্চল অক্ষত রাখা , বৃক্ষরোপন, বিদ্যুৎ উৎপাদনে ফসিল তেল, কয়লা ব্যবহার কমানো, বিদ্যুৎ উৎপাদনে বিকল্প ব্যবস্থা উদ্ভাবন , শিল্পক্ষেত্রে ক্ষতিকর গ্যাস নিয়ন্ত্রন , নগরায়নের নামে যথেচ্ছ গাছ কাটা বন্ধ প্রভৃতি উদ্যোগ গ্রহণের প্রয়োজনীতা অপরিসীম। একই সাথে প্রয়োজন সরকারী নীতিমালা, আর এই ধরণের নীতিমালা প্রনয়নের জন্য ক্রমাগত সবাইকে একত্রিত হয়ে সোচ্চার হতে হবে।

এরপর আলোচনা করেন স্পেলমেন কলেজের আফ্রিকান ডায়াসপোরা অফ দা ওয়ার্ল্ড এর শিক্ষক ড. কোয়ামে কালিমারা। এছাড়া আরো আলোচনা করেন ডাঃ মুস্তাফিজুর রহমান মিলু, এরিক হোসেইন, রাওদা রাহমান, সুজানা সেন, তিসা, আকাশলীনা সইয়দ, ড সৈয়দ ইফতেখার আহমদ, জনাব হাসান, সবুর খান প্রমুখ।

সংগঠনের সমন্বয়ক উৎপল দত্ত আমন্ত্রিত অতিথিদের শুভেচ্ছা ও ধন্যবাদ জানিয়ে আলোচনা সভার সমাপ্তি ঘোষনা করেন।

আলোচনা সভা শেষে সেলিনা মলি’র প্রাণবন্ত সঞ্চালনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের প্রথম পর্বে সংগীত পরিবেশন করেন বিশিষ্ট শিল্পী দীপাঙ্ক দত্ত ও আকাশলীনা সৈয়দ এবং কবিতা আবৃত্তি করেন বিশিষ্ট বাচিক শিল্পী রাশেদ চৌধুরী, ইকবাল এমদাদ এবং নাহিদ ফারজানা।

সব শেষে উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী, জরজিয়া, আটলান্টা শাখার শিল্পীবৃন্দ গণ সঙ্গীত পরিবেশন করেন ।

আরও খবর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -spot_img

সাম্প্রতিক খবর

সর্বাধিক পঠিত

- Advertisment - spot_img