বুধবার, এপ্রিল ১৭, ২০২৪
Homeপ্রধান সংবাদঘূর্ণিঝড়ের রূপ নেয়া নিম্নচাপটি শুক্রবার দেশের উপকূলে আঘাত হানতে পারে

ঘূর্ণিঝড়ের রূপ নেয়া নিম্নচাপটি শুক্রবার দেশের উপকূলে আঘাত হানতে পারে

ঢাকা : বঙ্গোপসাগরে সৃষ্টি হওয়া গভীর নিম্নচাপটি রাতেই ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে। ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নেয়া নিম্নচাপটি আগামীকাল শুক্রবার বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকায় আঘাত হানতে পারে।

বৃহস্পতিবার বিকালে আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ বজলুর রহমান জানান, বঙ্গোপসাগরে সৃষ্টি হওয়া গভীর নিম্নচাপটি রাতের মধ্যেই ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিবে। বর্তমানে যে গতিতে গভীর নিম্নচাপটি এগিয়ে আসছে, তাতে আগামীকাল শুক্রবার সন্ধ্যা থেকে মধ্যরাতের মধ্যে এটি বাংলাদেশের উপকূল অতিক্রম করতে পারে। তবে এই গতি পরিবর্তন হতে পারে। আগামীকাল শুক্রবার ঢাকায় বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা আছে। গভীর নিম্নচাপের কেন্দ্রের ৪৮ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৫০ কিলোমিটার। তবে এটি দমকা হাওয়া আকারে ৬০ কিলোমিটার পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তর সূত্র আরও জানায়, গভীর নিম্নচাপের কেন্দ্র ও আশে পাশে সাগর উত্তাল থাকায় নৌ দুর্ঘটনা এড়াতে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরগুলোতে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। এ ছাড়া উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে থাকা মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারগুলোকে অতি দ্রুত নিরাপদ আশ্রয়ে যেতে বলা হয়েছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের সর্বশেষ (বিজ্ঞপ্তি নং-৬) বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে এ খবর জানানো হয়। পশ্চিম-মধ্য বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত নি¤œচাপটি উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর ও ঘণীভূত হয়ে একই এলাকায় এটি গভীর নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকাল ৬টায় গভীর নিম্নচাপটি চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ৬২৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর হতে ৫৯০ কিলোমিটার, দক্ষিণ-পশ্চিমে, মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ৪৯০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর হতে ৪৯০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থান করছিল। এটি আরও উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর ও ঘণীভূত হতে পারে। গভীর নিম্নচাপের প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় সঞ্চরনশীল মেঘমালা সৃষ্টি অব্যাহত রয়েছে উল্লেখ করে আবহাওয়া অফিসের ৬নং বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, সৃষ্ট মেঘমালার প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন বাংলাদেশের উপকুলীয় এলাকা এবং সমুদ্রবন্দরগুলোর উপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এছাড়াও, গভীর নিম্নচাপ কেন্দ্রের ৪৮ কি.মি.এলাকার মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘন্টায় ৫০ কি.মি. যা দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়ার আকারে ৬০ কি.মি. পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। গভীর নিম্নচাপ কেন্দ্রের নিকটবর্তী এলাকায় সাগর উত্তাল রয়েছে।

এজন্য চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৩ (তিন) নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

আরও খবর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -spot_img

সাম্প্রতিক খবর

সর্বাধিক পঠিত

- Advertisment - spot_img