বৃহস্পতিবার, মে ২৩, ২০২৪
Homeপ্রধান সংবাদনিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে শেখ হাসিনার দেশে ফেরার দিন আজ

নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে শেখ হাসিনার দেশে ফেরার দিন আজ

ঢাকা: সেনাসমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার স্বদেশে ফেরার দিন আজ। তিনি যুক্তরাষ্ট্র থেকে যুক্তরাজ্য হয়ে ২০০৭ সালের ৭ মে দেশে ফেরেন। এর কিছুদিন পরই তাঁকে কারাবন্দি করা হয়েছিল।

২০০৭ সালের ১১ জানুয়ারি বিশেষ রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে সেনাসমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকার গঠন হয়।

সে সরকার নির্ধারিত মেয়াদের চেয়ে প্রায় দুই বছর বেশি সময় ক্ষমতায় থাকে। সেই সরকারের আমলে ২০০৭ সালের ১৫ মার্চ চিকিত্সার জন্য যুক্তরাষ্ট্রে যান আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। এরপরই তাঁর দেশে ফেরার ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা দেয় তৎকালীন সরকার। নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে একাধিকবার দেশে ফেরার চেষ্টা করেও নানা প্রতিবন্ধকতায় পারেননি শেখ হাসিনা।

পরে ২০০৭ সালের ৭ মে দেশে ফিরতে সক্ষম হন তিনি।

সে সময়ে যুক্তরাষ্ট্র থেকে দেশে ফেরার পথে শেখ হাসিনার সঙ্গী ছিলেন বর্তমানে আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আব্দুস সোবহান গোলাপ। জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমাদের কাছে বৈধ পাসপোর্ট, বিমানের টিকিট থাকা স্বত্ত্বেও এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষ বোর্ডিং পাস দিতে অস্বীকৃতি জানায়। ফলে একাধিকবার চেষ্টায়ও আমরা দেশে আসতে পারছিলাম না।

পরে নানা চাপে এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষ আমাদের যুক্তরাজ্য পর্যন্ত বোর্ডিং পাস দিতে রাজি হয়। আমরা প্রথমে যুক্তরাজ্য চলে আসি। পরে সেখান থেকে একাধিক এয়ারলাইন্সের সঙ্গে যোগাযোগের পর একটি এয়ারলাইন্স আওয়ামী লীগ সভাপতিকে বহন করে বাংলাদেশে নিয়ে আসতে রাজি হয়।’

৭ মে শেখ হাসিনা ঢাকায় ফিরলে লাখো জনতা তাঁকে সাদর অভ্যর্থনা জানায়। ঢাকা বিমানবন্দর থেকে তাঁকে মিছিল শোভাযাত্রা করে ধানমণ্ডির ৩২ নম্বরে ঐতিহাসিক বঙ্গবন্ধু ভবনে নিয়ে আসা হয়।

দেশে ফিরেই তিনি দেশের মানুষের হারানো গণতান্ত্রিক অধিকার ফেরানোর সংগ্রামের শপথ ব্যক্ত করেন। এমন পরিস্থিতিতে ১৬ জুলাই শেখ হাসিনাকে গ্রেপ্তার করে কারাবন্দি করে তত্ত্বাবধায়ক সরকার। প্রায় এক বছর তিনি কারাবন্দি ছিলেন। দেশে-বিদেশে নানা আন্দোলন, জনমতের চাপে ২০০৮ সালের ১১ জুন শেখ হাসিনাকে প্যারোলে মুক্তি দেয় সরকার।

পরে শেখ হাসিনা চিকিৎসার জন্য বিদেশ যান এবং চিকিত্সা শেষে ৪ ডিসেম্বর স্বদেশে ফিরেন। ২৯ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত নবম জাতীয় সংসদের নির্বাচনের মধ্যে দিয়ে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে সরকার গঠন করেন। এরপর থেকে টানা তিন মেয়াদে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শেখ হাসিনা দায়িত্ব পালনের কৃতিত্ব অর্জন করেন।

আরও খবর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -spot_img

সাম্প্রতিক খবর

সর্বাধিক পঠিত

- Advertisment - spot_img