শুক্রবার, জুন ২১, ২০২৪
Homeপ্রধান সংবাদসংকট সমাধানে গণ-আন্দোলন ছাড়া কোনো পথ নেই: দুদু

সংকট সমাধানে গণ-আন্দোলন ছাড়া কোনো পথ নেই: দুদু

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বলেছেন, বাংলাদেশের রাজনীতিতে যে সংকট তৈরি হয়েছে তা থেকে বেরিয়ে আসতে রাজপথে গণ-আন্দোলন ছাড়া কোনো পথ নেই। তিনি বলেন, দেশে রাজনীতিতে যে সংকট তৈরি হয়েছে- বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি, তারেক রহমানের দেশে প্রত্যাবর্তন ও এ সরকারের পদত্যাগ ছাড়া তা সমাধান হবে না। জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক পরিষদের উদ্যোগে গতকাল সোমবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিবের ওপর হামলার প্রতিবাদে ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের দাবিতে এক অবস্থান কর্মসূচিতে এ কথা বলেন তিনি। শামসুজ্জামান দুদু বলেন, যারা হাবিবুর রহমান হাবিবের ওপর হামলা করেছে অনতিবিলম্বে তাদের আইনের আওতায় আনা হোক। এর আগে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমানের ওপর খাগড়াছড়িতে হামলা করা হয়েছে। এ সরকার তাদের জনপ্রিয় তা হারিয়ে বিএনপির নেতাকর্মীদের ওপর হামলা নির্যাতন করে ক্ষমতায় থাকতে চায়। দুদু বলেন, নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দামও স্বাভাবিকভাবে বেড়েছে। যেখানে আপনি হাত দিলেও আপনার হাত পুড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা আছে। দেশের মানুষের এখন বেঁচে থাকাই কঠিন। এ সরকারিদল, তাদের লোকজন সিন্ডিকেট করে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম বাড়িয়েছে। এ সরকারের একজন প্রতিমন্ত্রী বলেছেন, এমপি-মন্ত্রীরা সিন্ডিকেট করে জিনিসের দাম বাড়িয়েছে। এরপর আর বলার কি আছে? বিএনপির ২০ দলীয় জোটের একটি দলকে গত ১০ বছরে কোনো সভা সমাবেশ করতে দেওয়া হয়নি। কিন্তু হঠাৎ করে আইনমন্ত্রীর জ্ঞান হয়েছে। তিনি বলেছেন, তাদের বিচার এখনো চলমান, তাই তাদের অধিকার আছে সমাবেশ করার। নতুন করে খেলা শুরু করতে চাচ্ছেন, খেলেন তবে আমাদের কিছু যায় আসে না। তিনি বলেন, এ সরকারের একজন সিনিয়র নেতা আমির হোসেন আমু বলেছেন বিএনপির সঙ্গে সংলাপ করতে তাদের কোনো প্রতিবন্ধকতা নেই। আমরা তো আপনাদের সঙ্গে সংলাপ করতে চাইনি। আবার ওবায়দুল কাদের বললেন তারা সংলাপের কথা বলেননি। একজন সংলাপের কথা বলে আর একজন না করে। তারা একটা তামাশা সৃষ্টি করেছে। তারা জনগণের সঙ্গে তামাশা করছে। আমরা স্পষ্টভাবে বলেছি এ সরকারের পদত্যাগ করতে হবে। সংসদ ভেঙে দিতে হবে। নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত¡াবধায়ক সরকার প্রতিষ্ঠিত করতে হবে। নতুন করে নির্বাচন কমিশন গঠন করতে হবে। সংলাপ পরের বিষয়। জাতীয়তাবাদী গণতন্ত্র পরিষদের সভাপতি মোক্তার আখন্দের সভাপতিতে কর্মসূচিতে আরও উপস্থিত ছিলেন দলের সাংগঠনিক সম্পাদক মিয়া মোহাম্মদ আনোয়ার, সাবেক সংসদ সদস্য নুর আফরোজ জ্যোতি, দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও আন্দোলনের সভাপতি কেএম রকিবুল ইসলাম রিপন, জাতীয়তাবাদী চালকদলের সভাপতি জসিম উদ্দিন কবির প্রমুখ।

আরও খবর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -spot_img

সাম্প্রতিক খবর

সর্বাধিক পঠিত

- Advertisment - spot_img