বুধবার, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২২
Homeপ্রধান সংবাদ‘সমস্যা থাকলে আমরা সমাধান করব, বিদেশিদের কাছে কান্নাকাটি কেন?’

‘সমস্যা থাকলে আমরা সমাধান করব, বিদেশিদের কাছে কান্নাকাটি কেন?’

স্টাফ রিপোর্টার: শ্রমিক নেতাদের উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বিদেশিদের কাছে গিয়ে কান্নাকাটি না করে আপনাদের যদি সমস্যা থাকে আমার কাছে আসবেন। আমি শুনব। মালিকদের কাছ থেকে যদি কিছু আদায় করতে হয়, আমি আদায় করে দেবো, আমি পারব। এ কথা আমি বলতে পারি। রোববার মহান মে দিবস উপলক্ষে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সরকারপ্রধান একথা বলেন। শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মন্নুজান সুফিয়ানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন মন্ত্রণালয়ের সচিব এহসান এ ইলাহী। প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এ আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, শ্রমিক-মালিকের মধ্যে যদি সৌহাদ্যপূর্ণ সম্পর্ক না থাকে তাহলে উন্নয়ন সম্ভব হয় না। আমরা আমাদের দেশের মানুষের কথা ভাবী, মানুষের কথা চিন্তা করি এবং মানুষের কল্যাণে কাজ করি। শিশুশ্রম বন্ধ করার লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী তার সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপের প্রসঙ্গ তুলে ধরেন। এ বিষয়ে তাঁতের শাড়ি বানানোর উদাহরণ দিয়ে বলেন, কিছুকিছু ট্রাডিশনাল কাজ থাকে। সেগুলো যদি ছোটবেলা থেকে রপ্ত না করে, তাহলে তাদের যে পৈতিৃক কাজ বা ব্যবসা; সেগুলো চালু থাকবে না। কারণ এটা হাতে কলমের শিক্ষা। কিন্তু সেটা ঝুঁকিপূর্ণ না। ঝুঁকিপূর্ণ কোনো কাজে কোনো শিশুকে ব্যবহার করা যাবে না। সেটা আমরা বন্ধ করেছি। কিন্তু ট্রাডিশনাল ট্রেনিংগুলো বাবা-মায়ের সঙ্গে বসে তারা করতে পারে। শ্রমিক-মালিক সকলকে সুসম্পর্ক বজায় রেখে চলার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা শ্রমিকদের জন্য এত কাজ করেছি, তারপরও দেখি আমাদের দেশে কিছু শ্রমিক নেতারা আছেন, তারা কোন বিদেশি বা সাদা চামড়া দেখলেই তাদের কাছে নালিশ করতে খুব পছন্দ করেন। আমি জানি না এই মানসিক দৈন্যতাটা কেন বা এর সঙ্গে কি অন্য কোনো স্বার্থ জড়িত আছে? কোনো দেনা-পাওনার ব্যবস্থা আছে? সেটা আমি জানি না! তিনি বলেন, তবে আমাদের দেশে কোনো সমস্যা হলে অন্তত আওয়ামী লীগ সরকার যতক্ষণ ক্ষমতায় আছে, আমি যতক্ষণ ক্ষমতায় আছি, অন্তত এই নিশ্চয়তা দিতে পারি যেকোনো সমস্যা সমাধান করতে পারি আমরা নিজেরাই। প্রধানমন্ত্রী বলেন, আজকে বাংলাদেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করেছে। আজকে আমাদের বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির ৯০ ভাগ আমরা নিজেদের অর্থায়নে বাস্তবায়ন করে যাচ্ছি। তার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত হচ্ছে পদ্মাসেতু। আমরা নিজেদের অর্থায়নে সম্পূর্ণ বাংলাদেশ সরকারের টাকায় পদ্মাসেতু নির্মাণ করেছি। যদি এটা করতে পারি, তাহলে বাংলাদেশ কেন পারবে না?

আরও খবর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -spot_img

সাম্প্রতিক খবর

সর্বাধিক পঠিত

- Advertisment - spot_img